শুন-শান নীরবতা, নিস্তব্ধ ঢাকা, হঠাৎ করেই যেন সব থমকে দাড়ালো

0
580
২৫ শে মার্চ, ১৯৭১
Print Friendly, PDF & Email

আজ সেই ভয়াল কালরাত্রি ২৫ শে মার্চ, মানব ইতিহাসের অন্যতম বর্বর গনহত্যার উদাহরণযোগ্য একটি দিন। “অপারেশন সার্চলাইট”, নিরস্ত্র বাঙালিদের গণহত্যার অপর নাম। মেজর জেনারেল খাদিম হুসাইন রাজা এবং মেজর জেনারেল ফরমানের এর পরিকল্পনা ও নেতৃত্বে ঢাকায় পাকিস্তানী বাহিনীর অন্যতম লক্ষ্য ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ইপিআর সদর দপ্তর, এবং রাজারবাগ পুলিশ লাইন ধ্বংস ও পরাভূত করা এবং ২য় ও ১০ম ইবিআর কে নিরস্ত্র করা।

 

শুন-শান নীরবতা, নিস্তব্ধ ঢাকা, হঠাৎ করেই যেন সব থমকে দাড়ালো। রাত ১১:৩০ শুরু হয় ঘুমন্ত নিরস্ত্র জনতার উপর পাকিস্তানী সামরিক বাহিনীর পৈশাচিক হত্যাযজ্ঞ। নির্বিচারে চলতে থাকে নারী, শিশু, পুরুষ, যুবক, বৃদ্ধ নিরীহ বাঙালী নিধন। এই নৃশংসতা যেন বুঝিয়ে ছিল ওদের মানবতার কোন অনুভূতি নেই, বিবেক বলে কোন কিছু নেই, ছিল শুধু বর্বর নিষ্ঠুরতা। তারা এদিন আগুন জ্বালিয়েছিল দাবানলের মতো বাঙালীর অস্তিত্ব ধ্বংসের নিমিত্তে।

Operation-SearchLight-Map-WikiMedia
Operation Searchlight 1971: Targets locations in Dhaka (Dacca). ছবিঃ উইকিমিডিয়া

 

রাত ১ টা, পরিকল্পনা অনুযায়ী পিলখানা, রাজারবাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, শাঁখারী বাজারসহ সমগ্র ঢাকাতেই শুরু হয় প্রচণ্ড আক্রমণ। রাজারবাগে পুলিশের বাঙালি সদস্যরা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন তাদের সামান্য অস্ত্রশস্ত্র দিয়েই। তবে ট্যাংক আর ভারী মেশিনগানের মুখে এ প্রতিরোধ বেশিক্ষণ টেকেনি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইকবাল হল (বর্তমান সার্জেন্ট জহুরুল হক হল) এবং জগন্নাথ হলে কয়েকশ নিরীহ ছাত্রকে হত্যা করা হয় এবং বড় বড় গর্ত করে পুঁতে ফেলা হয় ওইসব লাশ। হত্যা করা হয় আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন দার্শনিক অধ্যাপক ড. গোবিন্দ চন্দ্র দেব, ড. জ্যোতির্ময় গুহ ঠাকুরদা, ড. ফজলুর রহমান খান, অধ্যাপক এম মনিরুজ্জামান, অধ্যাপক এম এ মুক্তাদির, অধ্যাপক এম আর খাদেম, ড. মোহাম্মদ সাদেক প্রমুখ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে। রোকেয়া হলের মেয়েদের ধরে নিয়ে যাওয়া হলো ক্যান্টনমেন্টে। আগুন দেয়া হয় দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক সংবাদ, সাপ্তাহিক গণবাংলা এবং দৈনিক পিপলের দপ্তরে। এ দেশে বসবাসরত পাকিস্তানী বিহারীরাও সুযোগের সৎব্যবহার করে লুট-পাট ও তান্ডব চালায় প্রতিবেশী বাঙালীদের উপর। ভোরের আলো উঁকি দেয়ার আগেই ঢাকা পরিণত হয় এক মৃত্যুপুরীতে, চারিদিকে শুধু লাশ আর লাশ, ভস্মীভূত বাড়ী-ঘর। এই কয়েক ঘন্টার হত্যাযজ্ঞে বাঙালী হত-বিহবল হয়ে পড়ে কেননা এতটা বর্বর মানুশ হতে পারে তা হয়ত এই শান্তি প্রিয় জাতির জানা ছিল না।


কিন্তু বাঙালী বার বার পড়ে গেলেও মাথা তুলে আবার দাড়াতে জানে, এবং স্বাধীন বাংলাদেশ সেই অসীম সাহসিকতা ও বীরত্বের ফসল।

 

২৫ শে মার্চ ১৯৭১ এর ভয়াল কালরাতে শহীদ সকলের প্রতি, বাঙালিয়ানা Magazine সবার পক্ষ থেকে রইল গভীর সমবেদনা, শ্রদ্ধা ও সম্মান।

বাঙালিয়ানা Magazine এ লিখতে চান ?

বাঙালিয়ানা Magazine এর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম! আপনি যদি বাঙালিয়ানা Magazine এ আপনার কোন লেখা প্রকাশ করতে চান তাহলে তা unicode Bangla font (avro) দিয়ে লিখে তার সাথে প্রয়োজনীয় সকল ছবি সহ আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। মানসম্মত লেখা অবশ্যই প্রকাশিত হবে। আমাদেরকে লেখা পাঠাতে ইমেইল করুন এই ঠিকানায় bangalianamagazine@gmail.com
বিঃ দ্রঃ Copy করা কোন লেখা পাঠাবেন না। আমরা অরাজনৈতিক, অসাম্প্রদায়িক এবং নিরপেক্ষ।

 

Comments

comments